ক্যাজুয়াল পোশাকেই স্বচ্ছন্দ পুরুষেরা। তবে এমন অনেক উপলক্ষ থাকে যেখানে পাতলা টি-শার্ট, জিনসের প্যান্ট পরে যাওয়া যায় না, তা যতই আরামদায়ক হোক না কেন। আবার অনেক অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণপত্রে ড্রেস কোড ফরমাল—এমনটা লেখাই থাকে। এসব ক্ষেত্রে কেমন পোশাক পরতে পারেন?

দাওয়াত বা অনুষ্ঠানের পোশাকটা হওয়া চাই আরামদায়ক। অনুষ্ঠানের ধরন অনুযায়ী পোশাক পরতে হয়। স্যুট-টাই (কালো স্যুটের সঙ্গে একই রঙের প্যান্ট) পরা যায়। শার্টটা ফুল হাতা পরা ভালো। শার্টে কাফলিংক পরা যায়। সঙ্গে টাই থাকতেও পারে। চামড়ার তৈরি জুতা ও বেল্ট পরতে পারেন। হাতে চামড়ার বেল্টের ঘড়ি। কড়া গন্ধের পারফিউম ব্যবহার না করাই ভালো। চুল হবে আঁচড়ানো পরিপাটি। পুরো লুকে একটা কেতাদুরস্ত ভাব থাকবে।
এ নিয়ে কথা হয় মডেল আদিল হোসেন নোবেলের সঙ্গে। তিনি মোবাইল ফোন সংযোগদানকারী প্রতিষ্ঠান এয়ারটেলের করপোরেট এবং এসএমই সেলস বিভাগের প্রধান হিসেবে কাজ করছেন। তাঁর মতে, ঋতুর ওপর নির্ভর করে পোশাক পরা উচিত। যদি অনুষ্ঠানটি হয় শীতকালে তবে স্যুট পরতে হবে। কারণ স্যুট যেমন ফ্যাশনেবল আবার শীতও নিবারণ করে। স্যুটের সঙ্গে মানানসই টাই পরা যায়। অনুষ্ঠানের ধরন অনুযায়ী পোশাক নির্বাচন করা উচিত। গরমে দিনের বেলা যদি দাওয়াত হয়, তাহলে হাফ হাতা শার্ট পরা যেতে পারে। অথবা হালকা রঙের পোলো শার্টও পরা যেতে পারে। মোজা গাঢ় রঙের হবে, তবে খেয়াল রাখতে হবে, বসলে পায়ের খালি অংশ যেন দেখা না যায়।

খুব ঘনিষ্ঠ বা বন্ধুবান্ধবের দাওয়াতে গেলে কলারওয়ালা টি-শার্ট পরা যায়। নিমন্ত্রণ উৎ সবধর্মী হলে শার্টের রং ও নকশায় তার ছাপ থাকতে পারে। অফিসে যেমন গাঢ় রঙের শার্ট পরা হয়, তার বাইরে হলুদ, লাল, সবুজ ইত্যাদি উজ্জ্বল রঙের শার্ট পরতে পারেন। বড় ছাপা, চেক ইত্যাদি নকশা থাকতে পারে শার্টে।

ফ্যাশন হাউস লুবনান ও রিচম্যানের পরিচালক ও ডিজাইনার নাইমুল হক খান বলেন, ঋতু ও অনুষ্ঠানের স্থানকে মাথায় রেখে নির্বাচন করতে হবে, কী ধরনের পোশাক পরবেন। বিয়ে বা গায়েহলুদের অনুষ্ঠানে পাঞ্জাবি বা ফতুয়া পরতে পারেন। তবে তা যেন জমকালো ধরনের হয়। গলায়, হাতে সুতা, জরির কাজ থাকতে পারে। অ্যান্ডি, সিল্ক ইত্যাদি কাপড়ের পোশাক বেছে নিন। এর সঙ্গে নাগরা, কোলাপুরি চপ্পল পরতে পারেন। পোশাকের সঙ্গে লাল, সোনালি বা ঘিয়া রঙের উত্তরীয় ব্যবহার করতে পারেন। অনেকে বিয়েতে বরের পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে শেরওয়ানি বা শেরওয়ানি স্টাইলের পাঞ্জাবি পরেন।
তিনি আরও বলেন, বিয়ে বা বৌভাত অনুষ্ঠানে সাধারণত স্যুট পরা হয়। এর সঙ্গে ডেনিম প্যান্ট পরলেও ক্ষতি নেই। রংচঙে এবং একটু ভিন্ন ধরনের বোতাম লাগানো শার্ট পছন্দ করা যেতে পারে। ডেনিম প্যান্টে বেছে নিন চাপা ফিটিং ও হালকা নীল বা ছাই রং। ফরমাল প্যান্টের সঙ্গে স্লিমফিট শার্ট পরুন।
ফ্যাশন হাউস ক্যাটস আইয়ের নির্বাহী পরিচালক আশরাফ উদ্দিন জানালেন, যা-ই পরা হোক না কেন, পোশাক হবে ফিটিং। শার্টের রং গাঢ় বা সলিড হবে। এসব অনুষ্ঠানে কালো রঙের ওপর কাজ করা শার্ট পরতে পারেন। শার্টটা সিল্কের হলে ভালো।

দিনের বেলার অনুষ্ঠান হলে লিনেন কাপড়ে তৈরি একরঙা বা স্ট্রাইপড শার্ট পরা যায়। এর সঙ্গে কালো, বাদামি, ছাই রঙের গ্যাবারডিন কাপড়ের প্যান্ট পরা যেতে পারে।

ফেরদৌস ফয়সাল
সূত্র: দৈনিক প্রথম আলো, মার্চ ০৯, ২০১১